শুরু করছি আল্লাহ্‌র নামে যিনি পরম করুনাময় অতি দয়ালু, মেহেরবান ও ক্ষমাশীল

সপ্তাহ ৫ এবং ৬ : কেমন কাটবে আপনার গর্ভাবস্থার প্রত্যেকটি সপ্তাহ

মা ও শিশু
কেমন কাটবে আপনার গর্ভাবস্থার প্রত্যেকটি সপ্তাহ
| ৫ম ও ৬ষ্ট সপ্তাহ |

আপনি হয়ত অনেক মাস ধরে গর্ভধারণ করার জন্য অধীরভাবে অপেক্ষা করেছেন, বা হয়ত এই খবরটি আপনার কাছে একেবারেই অপ্রত্যাশিত ছিল । যেভাবেই হোক না কেন, আপনি এখন একটি ছোট্ট জীবনকে সঙ্গে নিয়ে একটি অবিস্মরণীয় যাত্রা শুরু করতে চলেছেন । এই সময়টিতে আপনার শরীর এবং আপনার শিশুর পুষ্টির সাথে সাথে গর্ভাবস্থা, সন্তানপ্রসব এবং অভিভাবকত্বের প্রতিটি নতুন দিনের জন্য প্রস্তুত হতে শুরু করুন ।

সপ্তাহ ৫

আপনার শিশু এখনো ক্ষুদ্রাকার, কিন্তু তার হৃদয়, মস্তিষ্ক, সুষুম্না, পেশী এবং হাড়ের বিকাশ শুরু করেছে । ডিম্বকবাহী গর্ভপত্র, যা আপনার শিশুকে পুষ্টি জোগায়, এবং এম্নিয়োটিক কোষ, যা উষ্ণতা এবং নিরাপদ পরিবেশ প্রদান করে যাতে আপনার শিশু সহজে নড়াচড়া করতে পারে, সেগুলিও এখন গঠিত হচ্ছে । এইসময় নাভিতন্ত্রীর গঠন হয় এবং সেটি আপনার শিশুকে আপনার রক্ত সরবরাহের সাথে যুক্ত করে ।

এখন আপনার সন্দেহ হতেই পারে যে আপনি গর্ভবতী । এছাড়াও আপনি গর্ভাবস্থার প্রাথমিক কিছু উপসর্গ খেয়াল করতে পারেন, যেমন:

বমি বমি ভাব (যাকে সকালের অসুস্থতা বা মর্নিং সিকনেস বলা হয়, যদিও এটা দিনে বা রাতে যে কোন সময়ে ঘটতে পারে) l

আপনার স্তন বা স্তনের কৃষ্ণাভ অংশে বেদনা বা তীব্র যন্ত্রনা-বোধ ।

ঘনঘন প্রস্রাব পাওয়া ।

অন্যান্য সময়ের চেয়ে বেশি ক্লান্তিবোধ ।

পঞ্চম সপ্তাহের জন্য পরামর্শ
আপনি গর্ভধারণ করেছেন এই সন্দেহ হওয়ার সঙ্গে-সঙ্গে আপনার যত তাড়াতাড়ি সম্ভব একজন গাইনোকোলজিস্ট বা ধাত্রীর সাথে যোগাযোগ করা উচিৎ । শুরুর থেকেই গর্ভাবস্থা-কালিন যত্ন এবং ডাক্তারের সাথে সময়মতো এপয়েন্টমেন্ট করা হল একটি স্বাভাবিক গর্ভাবস্থার এবং সুস্থ সন্তানের জন্ম দেওয়ার জন্য একটি বড় পদক্ষেপ ।

আপনার ক্রমবর্ধমান গর্ভ:
সেভাবে দেখতে গেলে বলতে হয়, গর্ভাবস্থার দুটি দিক আছে । একদিকে, এটি আপনার জীবনের সবচেয়ে উত্তেজনাপূর্ণ এবং মহিমাম্বিত অভিজ্ঞতা যা আপনি আগে কখনো অনুভব করেননি । অন্যদিকে, এটি একটি দীর্ঘ পথ এবং আপনি কোনো ভুল পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন কিনা সে সম্পর্কে, না চাইলেও, একটু উদ্বিগ্ন বোধ করবেন । চিন্তা করবেন না কারণ বেশীরভাগ সময় স্বাভাবিক গর্ভাবস্থার সম্ভাবনাই বেশী থাকে । তাই, গর্ভাবস্থার এই সুন্দর অভিজ্ঞতা উপভোগ করুন তবে তার সঙ্গে-সঙ্গে কিছু স্বাস্থ্যকর পদক্ষেপও নিতে শুরু করুন কারণ আপনি নিজে সুস্থ থাকলে আপনার ও আপনার সন্তান – উভয়ের স্বাস্থ্য রক্ষা করতে পারবেন ।

পঞ্চম সপ্তাহের জন্য যত্ন
যে মূ্হুর্তে আপনি সুনিশ্চিত হবেন যে আপনি গর্ভবতী, সেই মূহুর্তেই আপনার ডাক্তার সঙ্গে যোগাযোগ করুন । কোনো কোনো চিকিৎসক আপনাকে সাথে সাথেই দেখতে রাজী হবেন আবার কেউ হয়ত আপনার গর্ভাবস্থার আট সপ্তাহ পার না হওয়া পর্যন্ত রাজী হবেন না ।

সপ্তাহ ৬
ষষ্ঠ সপ্তাহে আপনার শিশুর আকৃতি একটি বেঙাচির মতো, এবং তার আকার একটি মার্বেলের গুলির মতো হয় । এইসময় শিশুর চোখ এবং হাত-পা বিকাশের জন্য ‘লিম্ব বাড’ গঠিত হয় । এখন আল্ট্রাসাউন্ড করালে আপনার ডাক্তার শিশুর হৃত্স্পন্দন শুনতে সক্ষম হতে পারেন । গর্ভধারণের ১৭ থেকে ৫৬ দিন হল সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সময় কারণ তখন শিশু সেই সবকিছুর প্রতি সংবেদনশীল হয় যা ওর স্বাভাবিক বৃদ্ধি প্রভাবিত করতে পারে ।

এই সপ্তাহটির মধ্যে, আপনি কয়েক কিলো ওজন অর্জন করে ফেলবেন । অথবা মর্নিং সিকনেসের কারণে আপনার ওজন কমেও যেতে পারে এবং সেটা অস্বাভাবিক কিছু নয় । আপনি আপনার শরীরে বেশ কিছু পরিবর্তন ঠাহর করতে শুরু করবেন, যেমন আপনার কোমরের চারপাশে আপনার রোজকার জামাকাপড় একটু টাইট লাগবে বা পা ও স্তন ভারী হবে এবং ফুলে যাবে । একটি শ্রোণী পরীক্ষার দ্বারা, এখন, আপনার ডাক্তার আপনার জরায়ুর আকারে পরিবর্তন লক্ষ্য করতে পারবেন ।

ষষ্ঠ সপ্তাহের জন্য পরামর্শ
প্রতিদিন স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার এবং প্রেগনেন্সি ভিটামিন সেবন করার অভ্যাস করুন । ইতিমধ্যে না করে থাকলে, এখনই ধূমপান ও মদ্যপান বন্ধ করুন ।

আপনার ক্রমবর্ধমান গর্ভ:
এইসময় প্রেগনেন্সি হরমোন (HCG)-এর উৎপাদন বাড়তে থাকে যার ফলে আপনি বমি বমি ভাব এবং ক্লান্তি বোধ করতে পারেন । গর্ভধারণ করায় আগের তুলনায় আপনার রক্তচাপ কম হওয়ার ফলে আপনার মাথা ঝিমঝিম করতে পারে বা মাথা ঘুরিয়ে যেতে পারে । অতিরিক্ত প্রজেস্টেরন এবং অন্যান্য হরমোনের জন্য আপনার ক্লান্তি, বিরক্তি, খামখেয়ালীপনা এবং বমি বমি বোধ হতে পারে, আবার আপনি স্বাভাবিক সময়ের থেকে কিছু আলাদা বোধ নাও করতে পারেন । যতক্ষণ আপনি না চান ততক্ষণ শরীরচর্চা বন্ধ করার বা কমিয়ে দেওয়ার কোন প্রয়োজন নেই । উল্টে, আপনি যত সক্রিয় থাকবেন তত আপনার শরীর এই অতিরিক্ত ওজন বহন করার ধকল সামলে নিতে সক্ষম হবে ।

ষষ্ঠ সপ্তাহের জন্য যত্ন
আপনি গর্ভধারণ করেছেন বোঝা স্বত্ত্বেও যদি সম্পূরক খাবার গ্রহণ না করে থাকেন, তাহলে ডাক্তারের সাথে প্রথম অ্যাপয়েন্টমেন্ট বা প্রেসক্রিপশনের জন্য আর অপেক্ষা করবেন না কারণ আপনি এইমূহুর্তে সম্পূরক খাবার গ্রহণ না করলে আপনার গর্ভাবস্থার বর্ধনশীল সময়ের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়টি ফস্কে যাবে । অবিলম্বে প্রতিদিন ৬০০ মাইক্রোগ্রাম করে সবুজ শাকসবজিতে প্রাপ্ত ফলিক এসিড সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করা শুরু করুন।

Source: WebMD

Leave a Reply

Close Menu