যিনি মৃত ব্যাক্তি কে গোসল দিয়েছেন তিনিও কি গোসল করবেন?

যিনি মৃত ব্যাক্তি কে গোসল দিয়েছেন তিনিও কি গোসল করবেন?

আলেমদের সঠিক মতানুযায়ী মৃতব্যক্তিকে গোসলদানকারীর জন্য গোসল করা মুস্তাহাব; ওয়াজিব নয়।

শাইখ আলবানী (রহঃ):

যে ব্যক্তি কোন মৃতব্যক্তিকে গোসল দিয়েছেন তার জন্য গোসল করা মুস্তাহাব। যেহেতু নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন: “যে ব্যক্তি মৃতব্যক্তিকে গোসল দিয়েছে তার উচিত গোসল করা। আর যে ব্যক্তি মৃতব্যক্তিকে বহন করেছে তার উচিত ওযু করা।”[সুনানে আবু দাউদ (২/৬২-৬৩), সুনানে তিরমিযি (২/১৩২)… হাদিসটির কোন কোন সনদ হাসান, আর কোন কোন সনদ ইমাম মুসলিমের শর্তে উত্তীর্ণ সহিহ…। ইবনুল কাইয়্যেম ‘তাহযিবুস সুনান’ গ্রন্থে হাদিসটির এগারটি সনদ উল্লেখ করেছেন। এরপর বলেছেন: “এ সনদগুলো প্রমাণ করে যে, হাদিসটি সংরক্ষিত”।

আমি বলব: ইবনুল কাত্তান হাদিসটিকে সহিহ বলেছেন, একইভাবে বলেছেন ইবনে হাযম ‘আল-মুহাল্লা’-তে (১/২৫০), (২/২৩-২৫), ইবনে হাজার ‘আল-তালখিস’ (২/১৩৪-মুনিরিয়্যা)-এ এবং তিনি বলেন: “হাদিসটির সর্বনিম্ন অবস্থা হলো: হাসান হওয়া”।

১। ইবনে আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত:

“যদি তোমরা তোমাদের মৃতব্যক্তিকে গোসল দাও এতে করে তোমাদের উপর গোসল করা ওয়াজিব নয়। কেননা তোমাদের মৃতব্যক্তি নাপাক নয়। তোমাদের হাতগুলো ধুয়ে নেয়া যথেষ্ট।”[মুস্তাদরাকে হাকেম (১/৩৮৬), সুনানে বাইহাকী (৩/৩৯৮)]

২। ইবনে উমর (রাঃ) এর উক্তি:

“আমরা মৃতব্যক্তিকে গোসল দিতাম। আমাদের মধ্যে কেউ গোসল করত। আর কেউ গোসল করত না।”[সুনানে দারাকুতনী (১৯১), আল-খাতীব ‘তারীখ’ গ্রন্থে (৫/৪২৪) সহিহ সনদে; যেমনটি বলেছেন: ইবনে হাজার। ইমাম আহমাদও সেদিকে ইঙ্গিত করেছেন। খতীব তাঁর থেকে বর্ণনা করেছেন যে, তিনি তাঁর ছেলেকে এ হাদিসটি লেখার প্রতি উদ্বুদ্ধ করেছেন।[সমাপ্ত][আহকামুল জানায়িয (৭১, ৭২)]

এই অভিমতটিকে স্থায়ী কমিটি প্রাধান্য দিয়েছেন (১/৩১৮) এবং শাইখ ইবনে উছাইমীন আল-শারহুল মুমতি গ্রন্থে (১/২৯৫)।

Source:

এটি ইবনে আব্বাস (রাঃ), ইবনে উমর (রাঃ), আয়েশা (রাঃ), হাসান বসরী (রহঃ), ইব্রাহিম নাখায়ী (রহঃ), শাফেয়ি (রহঃ), আহমাদ (রহঃ), ইসহাক্ব (রহঃ), আবু ছাওর (রহঃ), ইবনুল মুনযির (রহঃ) ও কিয়াসপন্থীদের অভিমত। ইবনে কুদামা (রহঃ) এই অভিমতকে প্রাধান্য দিয়েছেন। ([দেখুন: সুনানে তিরমিযি (৩/৩১৮), আল-মুগনী (১/১৩৪)])

Facebook | Twitter | Home |

Leave a Reply