ইসলাম শিক্ষা করার মর্যাদা

ইসলাম শিক্ষা করার মর্যাদা

আপনি শুধু মাত্র আল্লাহ্‌রই ইবাদত করবেন, এজন্যই তিনি আপনাকে সৃষ্টি করেছেন।

তিনি বলেন,

]وَمَا خَلَقْتُ الْجِنَّ وَالْإِنسَ إِلَّا لِيَعْبُدُونِي، مَا أُرِيدُ مِنْهُمْ مِنْ رِزْقٍ وَمَا أُرِيدُ أَنْ يُطْعِمُونِي، إِنَّ اللَّهَ هُوَ الرَّزَّاقُ ذُو الْقُوَّةِ الْمَتِينُ[

অনুবাদঃ

“আমি জ্বিন ও মানুষকে এজন্যই সৃষ্টি করেছি যে, তারা একমাত্র আমার ইবাদত করবে। আমি তাদের কাছে কোন জিবীকা চাইনা। চাইনা তারা আমাকে খাদ্য দান করুক। আল্লাহ্‌ই রিযিকদাতা প্রতাপশালী ক্ষমতাশালী।” (সূরা যারিয়াত- ৫৬-৫৮)

১. আপনার পালনকর্তা যেভাবে চান সেভাবে তাঁর ইবাদত করতে চাইলে, তিনি যে বিধি-বিধান ইসলামে প্রবর্তন করেছেন তার শিক্ষা অর্জন করা আপনার উপর আবশ্যক।

২. যদি আপনাকে কেউ প্রশ্ন করে “কেন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন? তার জবাব দেয়ার জন্য ইসলামের জ্ঞান লাভ করা আবশ্যক।

৩. অন্য ব্যক্তিকে ইসলামের প্রতি আহবান করার জন্যও ইসলাম জানা এবং বুঝা আবশ্যক।

নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বাণী

আপনি যদি বেশী বেশী ইসলামের জ্ঞান ও শিক্ষা অর্জন করেন, তবে আল্লাহ্‌র কাছে সবচাইতে সম্মানিত ব্যক্তি আপনিই।

আপনার নবী মুহাম্মাদ (ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেন:

مَنْ يُرِدِ اللَّهُ بِهِ خَيْرًا يُفَقِّهْهُ فِي الدِّينِ

আল্লাহ্‌ যার কল্যাণ চান, তাকে দ্বীনের গভীর জ্ঞান দান করেন। (বুখারী ও মুসলিম)

তিনি আপনাকে আরো সুসংবাদ দিচ্ছেন:

مَنْ سَلَكَ طَرِيقًا يَلْتَمِسُ فِيهِ عِلْمًا سَهَّلَ اللَّهُ لَهُ بِهِ طَرِيقًا إِلَى الْجَنَّةِ

“যে ব্যক্তি জ্ঞান অর্জন করার পথ অবলম্বন করে, আল্লাহ্‌ বিনিময়ে তার জন্য জান্নাতের রাস্তাকে সহজ করে দেন। (বুখারী ও মুসলিম)

Leave a Reply