স্ত্রীর মান

বইঃ আদর্শ রমণী
অধ্যায়ঃ স্ত্রীর মান

অধায়


রূপ – সৌন্দর্য ও পরিচ্ছন্নতা

অধ্যায়


বিবাহ কেন করবে

পুরুষের জন্য নারী এবং নারীর জন্য পুরুষ সবচেয়ে বড় উপহার। সৃষ্টিকর্তা যত নিয়ামত মানুষ কে দান করেছেন, তাঁর মধ্যে সবচেয়ে বড় দান হল এই স্ত্রী। এই সৃষ্টি – বৈচিত্র রয়েছে তাঁর কুদরতের নিদর্শন । তিনি বলেন,
তাঁর নিদর্শনাবলীর মধ্যে আর একটি নিদর্শন এই যে, তিনি তোমাদের জন্য তোমাদের মধ্য হতেই তোমাদের সঙ্গিনীদের কে সৃষ্টি করেছেন, যাতে তোমরা ওদের নিকট শান্তি পাও এবং তোমাদের মধ্যে পারস্পরিক ভালবাসা ও মায়া – মমতা সৃষ্টি করেছেন। ( সূরা রূম ২১ আয়াত)

নারীর মহাত্ম্য বর্ণনা ক’রে কবি লিখেছেন,

“এ জগতে যত ফুটিয়াছে ফুল, ফলিয়াছে যত ফল,
নারী দিল তাহে রূপ-রস-মধু-গন্ধ সুনির্মল।
কোনো কালে একা হয়নি কো জয়ী পুরুষের তরবারি,
প্রেরণা দিয়াছে, শক্তি দিয়াছে বিজয়-লক্ষ্মী নারী।”
“প্রেমের প্রতিমা স্নেহের সাগর
করুণা – নির্ঝর দয়ার নদী,
হত মরুময় সব চরাচর
জগতে নারী না থাকিত যদি।”

অবশ্য কেবল স্ত্রী নয়, পুণ্যময়ী স্ত্রীর মহাত্ম্য রয়েছে বড়। মহানবী (সাঃ) বলেন,
“দুনিয়া (তাঁর সবকিছু) উপভোগ্য বস্তু। আর দুনিয়ার উপভোগ্য বস্তুসমূহের মধ্যে সর্বাপেক্ষা শ্রেষ্ঠ বস্তু হল পুণ্যময়ী স্ত্রী।”( মুসলিম ১৪৬৭)
আল্লাহর রসূল (সাঃ) বলেন, “পুরুষের জন্য সুখ ও সৌভাগ্যের বিষয় হল চারটি; সাধ্বী স্ত্রী, প্রশস্ত বাড়ি, সৎ প্রতিবেশী এবং সচল সওয়ারী ( গাড়ি)। আর দুখ ও দুর্ভাগ্যের বিষয়ও চারটি; অসৎ প্রতিবেশী, অসতী স্ত্রী, অচল সওয়ারী (গাড়ি) এবং সংকীর্ণ বাড়ি।”( সিলসিলাহ সহীহাহ ২৮২ নং)
জ্ঞানিগণ বলেন, ঘোড়া যত বেশী তেজীই হোক না কেন, তাঁর জন্যও চাবুক প্রয়োজন ।
মহিলা যত বেশি সতীই হোক না কেন, তাঁর জন্যও বিবাহের প্রয়োজন এবং জ্ঞানী যত বড়ই হোক না কেন, তারও প্রয়োজন পরামর্শের ।

Back To Top