শুরু করছি আল্লাহ্‌র নামে যিনি পরম করুনাময় অতি দয়ালু, মেহেরবান ও ক্ষমাশীল

সুভাষিণী, ধীরা ও শান্ত মেজাজের মেয়ে হও।


যার ঠান্ডা মেজাজ আছে, যে ঠান্ডা কথা বলে, তাঁর প্রতি সকলের হৃদয় ঠান্ডা থাকে।

জ্বালাময়ী মূর্তির সামনে সকলের মন সংকীর্ণ ও বিরক্ত হয়ে উঠে। তুমিও সেই মেয়ে, যে শান্তভাবে কথা বলে, যার বাড়ির ভিতরের আওয়াজ বাইরে যায় না।

পক্ষান্তরে যে ঘরে মোরগেরচেয়ে মোরগীর রব উচ্চতর, সে ঘর বড় দুঃখের ঘর। সুখী ঘর হতে কোন দিন উঁচু আওয়াজ শোনা যায় না।

তুমি হয়তো লক্ষ্য করেই থাকবে, যার স্বামী মিনমিনে, তাঁর আওয়াজ হয় জ্বালাময়, উঁচু ও কর্কশ। যার স্বামী ভেড়া, সে হয় মোড়লবিবি। দেখবে, স্বামীকে ধমক দিয়ে কথা বলে, জাহাবাজি স্বরে আদেশ করে, কোন ক্রটি হলে বজ্রকন্ঠে ডাঁটে ও শাসন করে। এ যেন বউ নয়, এ যেন প্রভুপত্মী।

‘ঠারে ঠোরে কথা কই দিনে পতির সনে,

রাত্রি হইলে নিদ্রা যাই গরুড়-শ্যনে’।

এদের জীবনে কি সুখ আছে বোনটি? আশা করি তুমি এমনটি হবে না। তুমি যে আদর্শ রমণী।

Close Menu