Mon. Sep 23rd, 2019

মাদবর

কুরআন ও সুন্নাহর আলোকে, ইসলামকে জানি নিজের ভাষায়

নারী সম্পর্কে অভিজ্ঞতালব্ধ বাণী।

নারী সম্পর্কে অভিজ্ঞতালব্ধ বাণী।


১। স্ত্রী পুরুষের জন্য ফিতনা স্বরূপ।

এটি হাদীসের কথা। তুমি বল, আমি ফিতনায় ফেলি না এবং পড়িও না।

২। নারী টেরা হাড়ে তৈরী।

এটিও হাদীসের কথা। তুমি বল, আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করি সোজা হয়ে চলার।

আল্লাহ যেন আমাকে তওফীক দেন।

৩। মেয়েদের জ্ঞান কম।

তুমি বল, আমি কোন অজ্ঞানীর কাজ করব না ইন শাআল্লাহ।

৪। মেয়েরা স্বামীর কৃতঘ্ন।

এটিও হাদীসের কথা। এ তো মিথ্যা হতে পারে না। তুমি বল, কিন্তু আমি আমার স্বামীর সর্বদা কৃতজ্ঞতা স্বীকার করব। যার নুন খাওয়া হয়, তার গুণ গাওয়া তো মানুষের স্বভাবজাত অভ্যাস। আর আমি নিমকহারাম নই।

৫। কুকুর দ্বারা খরগোশ শিকার করা যায়, চকলেট দ্বারা শিশু, আর মাল দ্বারা মহিলা।

এ কথা তুমি তোমার মধ্যে মিথ্যা প্রমান কর।

৬। তিনটি জিনিসের কোন ভরসা নেই; ঘোড়ার সুস্বাস্থ্য, নারীর অঙ্গীকার এবং শুশুর ভালবাসা।

এ কথা তুমি তোমার মধ্যে মিথ্যা প্রমাণ কর।

৭। মহিলার হৃদয় হল মরুভূমির বালির মত। গতকাল যা লিখেছে আজ তার কোন চিহ্ন দেখতে পায় না।

এ কথা তুমি তোমার জীবনে মিথ্যা প্রমাণ কর।

৮। বউ নষ্ট বাপের বাড়ি, ঝি নষ্ট ঘাটে, পান্তাভাতে ঘি নষ্ট, ছেলে নষ্ট হাটে।

এ কথা তোমার ব্যাপারে মিথ্যা প্রমাণ কর।

৯। বাপের বাড়িতে মেয়েদের কান ভারি হয়।

এ কথা মিথ্যা প্রমাণ করে তুমি স্বামীকে দেখাও।

১০। শ্বশুরবাড়ি মধুর হাড়ি, তিনদিন পর ঝাটার বাড়ি।

মায়ের ঘর তুমি ভালবাসো, তোমাকে ও তোমার স্বামীকে তোমার মা-বাপ ভালবাসে। কিন্তু তোমার ভাই-ভাবীর কথা ভেবে দেখেছ কি? সুতরাং সেখানে রেখে তুমি তোমার স্বামীর মান নষ্ট করো না।

১১। ভাই-এর ভাত, ভাজের হাত। (দুর্বিষহ)

এতে তুমি ব্যতিক্রম, তা প্রমাণ কর।

১২। মহিলারা ধনী পুরুষ পছন্দ করে না। কিন্তু পুরুষের ধন পছন্দ করে।

সে পছন্দে দোষ নেই। তবে তাতে তুমি আল্লাহকে ভয় কর এবং যথাস্থানে ও যথা পরিমাণে ধন খরচ কর।

১৩। ফুল রোদে ফোটে। কিন্তু নারী এমন এক ফুল, যা ছায়াতেই ফোটে।

এটা তো প্রাকৃতিক নিয়ম। নারী আওতার ঘাস। তুমি বল, আমি স্বার্থপর না হতে চেষ্টা করব।

১৪। নারী ভালবাসেনা। কিন্তু সে ভালবাসে যে, তাকে ভালবাসা হোক।

এতা এক তরফা স্বার্থপরতা। তুমি বল, আমি আমার স্বামীকে প্রাণের চেয়েও বেশী ভালবাসি। আমি আমার স্বামীকে বলি, ‘আমি নিশিদিন তোমায় ভালবাসি, তুমি অবসর মত বাসিও।

১৫। মহিলা ঈর্ষাবান পুরুষকে অপছন্দ করে। কিন্তু যে তার ব্যাপারে ঈর্ষাবান নয় তাকে সে আরো বেশী অপছন্দ করে।

এটা ঠিক কথাই। তবে যে সত্যের জন্য ঈর্ষাবান তাকে অপছন্দ করা উচিত নয়।

১৬। মহিলা যখন তার কন্ঠস্বর নিচু করে, তখন সে তোমার কাছে কিছু পেতে চায়। আর তখন তা উচু করে, যখন সে জিনিস তোমার নিকট না পায়।

এটা মানুষের প্রকৃতিগত ব্যাপার। তবে স্বামীর ক্ষেত্রে এমন অভ্যাস নিশ্চয় ভাল নয়। স্বামীর বিরুদ্ধে আওয়াজ উচু করা ‘আদর্শ রমণী’র আচরণ হতে পারে না।

১৭। নারীর ৩ টি গুনঃ অনুভূতি, ঈর্ষা ও পরিচ্ছন্নতা।

নারী ৩ টি কাজ খুব ভালো পারেঃ কান্না, প্রলোভন ও প্রবঞ্চনা।

নারী ৩টি যা অপছন্দ করেঃ নীরবতা, একাকিত্ব ও হিসাব-নিকাশ।

নারীর জন্য ৩ টি উপযুক্ত কাজঃ গৃহস্থালি কর্ম, সন্তান প্রতিপালন ও রোগীর সেবা।

নারী যে ৩ টি কাজে খুব পাটুঃ প্রসাধন, কলহ ও ছলনা।

তুমি বল, যেগুলি মন্দ আচরণ, আল্লাহ যেন আমাকে তার থেকে দূরে রাখেন।

১৮। মহিলা যখন পারে তখন হাসে, কিন্তু যখন ইচ্ছা করে তখন কাদে।

১৯। নারী যখন কাদতে শুরু করে, তখন পুরুষের মোকাবিলা- ক্ষমতা চূর্ণ হয়ে যায়।

নাকে কাদা মহিলার সহজাত অভ্যাস। সামান্য আচড়ে এদের দেহ থেকে রক্ত বের হয়, চোখের কোণে পানি ঝুলে থাকে, এদের কুম্ভীরাশ্রু ও ছলনার অশ্রু হল সবচেয়ে মারাত্মক। তুমি বল, আল্লাহ আমাকে কথায় কথায় নাকে কাদা ও ছলনা থেকে দূরে রাখুক।

২০। তিন শ্রেণীর মানুষ নারীকে বুঝতে পারে না; শিশু, যবক ও বৃদ্ধ।

২১। বেলা ভূমিতে দাঁড়িয়ে আমরা সমুদ্রের যতটুকু দেখতে পাই, নারীকে ঠিক ততটুকু দেখতে পাই।

২২। সাগরের মত নারী ডাগর জিনিস।

২৩। পৃথিবীতে যত কিছু আশ্চর্য জিনিস আছে তার মধ্যে সবচেয়ে আশ্চর্য মেয়ে মানুষের মন। তারা কি চায়, আর কি চায় না অতি বড় পন্ডিতরা ও বলতে পারে না।

উক্ত কথা গুলির সারমর্ম একটি হাদীসে বর্ণিত হয়েছে, একদা নবী (সা:) (মহিলাদের কে সম্বোধন করের) বললেন, “হে মহিলা সকল! তোমরা সাদকাহ-খয়রাত করতে থাক ও অধিকমাত্রায় ইস্তিগফার কর। কারণ, আমি তোমাদের কে জাহান্নামের অধিকাংশ অধিবাসিরূপে দেখলাম।” একজন মহিলা নিবেদন করল, আমাদের অধিকাংশ জাহান্নামী হওয়ার কারণ কি? হে আল্লাহর রসূল! তিনি বললেন, “তোমরা অভিশাপ বেশি কর এবং নিজ স্বামীর অকৃতজ্ঞগতা কর। বুদ্ধি ও ধর্মে অপূরণ হওয়া সত্ত্বেও বিচক্ষণ ব্যক্তির উপর তোমাদের চাইতে আর কাউকে বেশি প্রভাব খাটাতে দেখিনি।”

(অন্য কথায়, মহিলা জ্ঞানী পুরুষেরও মাথা খেয়ে বসে।)(মুসলিম)

তুমি বল, আমি আল্লাহর কাছে ক্ষমা ভিক্ষা করি। আমি আমার ছলা-কলা প্রদর্শন করে কারো জ্ঞান-বুদ্ধির মাথা খেতে চায় না। আমি আদর্শ নারী, আমি মা খাদীজা, উম্মে সালামাহ ও আয়েশার মত জ্ঞানের কাজে স্বামীকে সহযোগিতা করতে পারি।

২৪। মহিলাদের বয়স বিয়োগ করে হিসাব করতে হয়, যোগ করে নয়।

২৫। যদি চাও যে মহিলা মিথ্যা বলুক, তাহলে তার বয়স জিজ্ঞাসা কর।

২৬। মহিলার যদি আসল বয়স জানতে চাও, তাহলে তার ভাবীকে জিজ্ঞাসা কর।

সাধারণতঃ বিয়ের আগে এই মিথ্যা বলা হয়। কারণ, যুবকরা বেশী বয়সের মেয়ে পছন্দ করে না। তারা বলে, ‘কুড়ির মেয়ে বুড়ি।’ তুমি বল, আমি আদর্শ মহিলা, আমি মিথ্যা বলি এবং আন্দাজেও কারো বয়স ধরি না। বয়স কম বললেই আমার রূপ-লাবণ্য বেশী হবে নাকি?

২৭। পুরুষ নারীর ব্যাপারে যাচ্ছে তাই বলতে পারে। আর নারী পুরুষের ব্যাপারে যাচ্চে তাই করতে পারে।

এ কথা ভুল প্রমাণ কর।

২৮। ‘নয়ন কেবল নীল উৎপল

মুখ শতদল দিয়া গঠিল,
কুন্দে দন্ত পাতি রাখিয়াছে গাথি
অধরে নবীন পল্লব দিল।
শরীর সকল চম্পকের দল
দিয়া অবিকল বিধি রচিল,
চাই ভাবি মনে তবে কি কারণে
পাষানেতে তব মন গঠিল।’

নারীদের মন সাধারণতঃ নরম। কিন্তু প্রবঞ্চনায় তাদের মন বড় পাষাণ। তুমি বল, আমি মুসলিম আদর্শ নারী। আমি অতি সহজ-সরল, আমার মধ্যে প্রবঞ্চনা ও ছলনা নেই।

আমি সেই নারী যাদের জন্য বলা হয়েছে,

‘ছোট ছোট মেয়েগুলি কিসে হয় তৈরী, কিসে হয় তৈরী?

ক্ষীর, ননী, চিনি আর ভালো যাহা দুনিয়ার

মেয়ে গুলি তাই দিয়ে তৈরী।’

২৯। নারী প্রকৃতিগত ভাবে যন্ত্রণাদাত্রী; অসুন্দরী হলে হৃদয়ে ব্যথার সৃষ্টি হয়, আর সুন্দরী হলে মাথায় ব্যথা সৃষ্টি করে।

এ উক্তিকে তুমি ভ্রান্ত প্রমাণ কর।

৩০। বার্ণাডশ’ বলেন, দাম্পত্য –জীবন একটি কোম্পানির নাম; যাতে পুরুষ উপার্জন করে, আর মহিলা অপচয় করে।

এ কথা তুমি তোমার জীবনে ভুল প্রমাণ কর।

৩১। সুরা এবং নারী অনেক প্রতিভার অপমৃত্যু ঘটায়।

তুমি বল, আমি সেই নারী নই। আমি ‘আদর্শ নারী’।

৩২। মেয়ে মানুষের তূণে যত প্রকার দিব্যাস্ত্র আছে, তন্মধ্যে ‘আড়ি পাতা’টা হল ব্রক্ষাস্ত্র। সুবিধে পেলে এতে মা-মেয়ে, শাশুড়ী-বউ, জা-ননদ, কেউ কাউকে খাতির করে না ।

আড়ি পাতা বা অভিমান করা, মুখ নামিয়ে কোন কিছুর জন্য গো ধরা মহিলাদের একটি অভ্যাস। তুমি বল, আমি এর ব্যতিক্রম।

চন্দ্রবদনা, মৃগনয়না, চঞ্চলমতি বোনটি আমার! তুমি হও ধীরগতি। সবার মাঝে তুমি অনন্যা হও।

আল্লাহ হাফেজ!

সমাপ্ত।

Copyright © All rights reserved. | Newsphere by AF themes.