Skip to content

আল্লাহর নিকট আসমান ও যমীনের কোন বিষয়ই গোপন নেই।

আল্লাহর নিকট আসমান ও যমীনের কোন বিষয়ই গোপন নেই।

সূরা আল ইমরান, আয়াতঃ ৫

إِنَّ اللَّهَ لَا يَخْفَىٰ عَلَيْهِ شَيْءٌ فِي الْأَرْضِ وَلَا فِي السَّمَاءِ [٣:٥]

আল্লাহর নিকট আসমান ও যমীনের কোন বিষয়ই গোপন নেই।

পরের আয়াতে আল্লাহ্‌ বলেনঃ

هُوَ الَّذِي يُصَوِّرُكُمْ فِي الْأَرْحَامِ كَيْفَ يَشَاءُ ۚ لَا إِلَٰهَ إِلَّا هُوَ الْعَزِيزُ الْحَكِيمُ [٣:٦]

অনুবাদঃ তিনিই সেই আল্লাহ, যিনি তোমাদের আকৃতি গঠন করেন মায়ের গর্ভে, যেমন তিনি চেয়েছেন। তিনি ছাড়া আর কোন উপাস্য নেই। তিনি প্রবল পরাক্রমশীল, প্রজ্ঞাময়।

তাফসীর

আল্লাহ্‌ তা’আলা সংবাদ দিচ্ছেন যে, আকাশ ও পৃথিবীর কোন কিছুই তাঁর নিকট লুক্বায়িত নেই, বরং সব কিছুইরই তিনি পূর্ণ জ্ঞান রাখেন।

তিনি বলেনঃ

‘আল্লাহ্‌ পাক তোমাদেরকে তোমাদের মায়ের জরয়ায়ুর মধ্যে আকৃতি বিশিষ্ট করেছেন। তিনি যে ভাবেই আকৃতি গঠনের ইচ্ছা করেছেন তাই করেছেন।

  • তিনি ছাড়া অন্য কেউ ইবাদত এর যোগ্য নেই।
  • তিনি মহা পরাক্রমশালী ও বিজ্ঞানময়।
  • একমাত্র তিনিই যখন তোমাদের আকৃতি গঠন করতঃ তোমাদেরকে সৃষ্টি করেছেন, তখন তোমরা একমাত্র তাঁর ইবাদত ছাড়া অন্যের ইবাদত করবে কেন?
  • তিনি অবিনষ্ট সমানো ধ্বংসহীন জ্ঞানের অধিকারী।

এতে ইঙ্গিত রয়েছে এমন কি স্পষ্ট প্রতিয়মান হয়েছে যে, হযরত ঈসাও (আঃ) আল্লাহ্‌ তা’আলার সৃষ্ট এবং তাঁরই পদপ্রান্তে মস্তক অবনতকারী।

সমস্য মানুষের ন্যায় তিনিও একজন মানুষ।

তাঁর আকৃতি আল্লাহ্‌ তা’আলা তাঁর মায়ের জরায়ুর মধ্যে গঠন করেছিলেন এবং তাঁর সৃষ্টির মাধ্যেই সৃষ্ট হয়েছেন।

সূতরাং তিনি কিরূপে আল্লাহ্‌ হয়ে গেলেন?

যেমন অভিসপ্ত খ্রিষ্টানেরা মনে করে নিয়েছে? অথচ তিনিইতো তোমাদেরকে তোমাদের এক অবস্থা হতে অন্য অবস্থার দিকে ফিরিয়ে থাকেন।

যেমন অন্য জায়গায় রয়েছেঃ

يَخْلُقُكُمْ فِي بُطُونِ أُمَّهَاتِكُمْ خَلْقًا مِّن بَعْدِ خَلْقٍ فِي ظُلُمَاتٍ ثَلَاثٍ

তিনি তোমাদেরকে সৃষ্টি করেছেন তোমাদের মাতৃগর্ভে পর্যায়ক্রমে একের পর এক ত্রিবিধ অন্ধকারে।

সূরা আয যুমার, আয়াত ৬

সূত্র

Social Media

Facebook | Twitter | Instagram

Leave a Reply